শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন

ভারতে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের পর এবার ভয়াবহ হোয়াইট ফাঙ্গাস

বিশেষ প্রতিনিধি
আপডেট শুক্রবার, ২১ মে, ২০২১, ৬:২৩ অপরাহ্ণ

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন পুরো ভারত বিপর্যস্ত ঠিক এমন সময় ভারতে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের পর এবার নতুন সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে হোয়াইট ফাঙ্গাস বা সাদা ছত্রাক।

আগের ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের চেয়ে এই হোয়াইট ফাঙ্গাস অনেক বেশি বিপজ্জনক ও ভয়াবহ বলে জানিয়েছেন ভারতীয় চিকৎিসকগণ। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে এমনটি বলা হয়।

ইতিমধ্যেই ভারতে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণকে মহামারি বলে ঘোষণা করা হয়েছে। স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জনগণকে সচেতন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ এর মধ্যে পাটনা এবং বিহারে এবার ধরা পড়ল ‘হোয়াইট ফাঙ্গাস’। বিহারে এই ছত্রাকে সংক্রমিত হয়েছেন বেশ কয়েকজন।

ভারতের চিকিৎসকেরা বলছেন, হোয়াইট ফাঙ্গাস শুধুমাত্র ফুসফুস নয়, নখ, ত্বক, পেট, কিডনি, মস্তিষ্ক, গোপনাঙ্গ এবং মুখ সহ শরীরের অন্যান্য অংশগুলিকে প্রভাবিত করতে পারে। নখের মাধ্যমে এটি খুব দ্রুত অন্যান্য অঙ্গে ছড়িয়ে পড়ে। এর পর অঙ্গগুলিকে বিকল করে দিতে পারে এই ছত্রাক।

ভারতের চিকিৎসকরা আরও জানিয়েছেন, করোনা থেকে আরোগ্যের পথে বা সুস্থ হয়ে ওঠাদের শরীরে বিরল এক সংক্রমণ- যার নাম “ব্ল্যাক ফাঙ্গাস” বা বৈজ্ঞানিক নাম মিউকোরমাইকোসিস। মিউকোর নামে একটি ছত্রাকের সংস্পর্শে এলে এই সংক্রমণ হয়। সাধারণত এই ছত্রাক পাওয়া যায় মাটি, গাছপালা, সার এবং পচন ধরা ফল ও শাকসবজিতে। এই ছত্রাক সাইনাস, মস্তিষ্ক এবং ফুসফুসকে আক্রান্ত করে। ডায়াবেটিস, ক্যান্সার বা এইচআইভি/এইডস যাদের আছে, কিংবা করোনা বা অন্য কোন রোগের কারণে যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুবই কম এই মিউকোর থেকে তাদের সংক্রমণের ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের এই আতঙ্কের মধ্যেই ভারতীয় চিকিৎসকরা বলছেন এটার বিপজ্জনক রূপ হলো হোয়াইট ফাঙ্গাস বা সাদা ছত্রাক। তবে হোয়াইট ফাঙ্গাস সম্পর্কে এখনও বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি। এখন পর্যন্ত যে ক’জন রোগী পাওয়া গেছে, তাদের লক্ষণ দেখে চিকিৎসকরা ধারণা করছেন হোয়াইট ফাঙ্গাস আরও বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে। তবে যে ক’জনের শরীরে এই ছত্রাকের সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে, তাদের করোনার যাবতীয় উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও পরীক্ষায় করোনার সংক্রমণ ধরা পড়েনি।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD